support@autosolutionpoint.com

+880 1836 622224, +880 1861 402326

বাইকের চাকা একদিকে হেলে পরে কারণ কী?

বাইকের চাকা একদিকে হেলে পড়ার কারণ কী

অনেক সময় আমরা অনুভব করি যে আমাদের বাইরের চাকা একবার ডান দিকে একবার বাম দিকে হেলে ঘুরছে। আর একটু সহজ করে যদি বলি, আমরা যদি কোন ভাঙ্গা বা কাচা রাস্তা দিয়ে চলি তখন মনে হয় আমাদের বাইকের চাকা একদিকে হেলে পরে। 

এই সমস্যা যদি সাধারন বাইক চালানোর সময় হয়, প্লেইন রস্তাতে বুজতে পারেন যে আপনার বাইক হেলে হেলে চলছে তাহলে বুজে নিবেন আপনার বাইকে কিছু প্রবলেম হইছে।

আজ আমরা আলোচনা করব এই সমস্যাগুলি নিয়ে এবং কীভাবে সেগুলি থেকে মুক্তি পাবেন।

পিছনের চেসিস বুশ অথবা বিয়ারিং ক্ষতিগ্রস্ত হলেঃ

সাধারনত বাইকের চেসিস দুটি অংশে গঠিত। একটি চেসিসে ইঞ্জিন সহ সকল কিছু সেট করা থাকে তাকে ফ্রন্ট চেসিস বলে। অন্যটাতে পিছনের চাকা এবং সাসপেনশন সহ কিছু আনুসাঙ্গিক সংযুক্ত থাকে তাকে ব্যক চেসিসও বলা হয়। আমরা চেসিস বুশ বলতে দুটি চেসিস এর সংযুক্ত স্থানে যে বুশ বা বিয়ারিং ব্যবহার করা হয় তাকে বুজি। যদি কোন কারনে বুশ খারাপ হয়ে যায় বা খোলার পর ঠিকমত ফিটিং না করতে পারে তাহলে চাকা একদিকে হেলে পরে। 

এজন্য হেলে পরা সমস্যা দেখা দিলে চেসিস বুশ চেক করে প্রবলেম দেখা দিলে দক্ষ টেকনিশিয়ান দ্বারা পরিবর্তন করে দিলেই সমাধান মিলবে। চাকা একদিকে হেলে পরে

কাপলিং রাবার নস্ট হয়ে গেলেঃ

বাইকে ট্রান্সমিশন এর জন্য চাকার সাথে রাবার বুশ ব্যবহার করা হয় তাকে কাপলিং রাবার বলা হয়। দির্ঘদিন চালানোর ফলে কাপলিং রাবার নস্ট হয়ে যায়, আর এই রাবার নস্ট হয়ে গেলে চাকা এদিক ওদিক দুলতে পারে। 

টায়ার পুরনো হলেঃ

টায়ারের ভিতরে বাতাস থাকে আর এই বাতাসকে টায়ারের মাধ্যমে সমান ভাবে চারদিকে ধরে রাখে। আর যখন বাইক চলাচল করে তখন বাইকের টায়ারের বাহিরের আবরন ক্ষয় হতে থাকে। আমরা যখন বাইক লোড অবস্থায় চলাচল করি তখন বাইকের চাকার উপর প্রেসার পরে ফলে বাইকের লোড এবং আমাদের লোড চাকা নিতে না পেরে কোন এক সাইট বেশি ক্ষয় হয়। এতে করে মনে হয় বাইকের চাকাটা কোন একদিকে হেলে ঘুরছে। 

বাইকের টায়ারের একটা নির্দিষ্ট টেম্পার থাকে, দির্ঘদিন বাইক চলার পরে বাইকের টায়ারের একটা নির্দিষ্ট টেম্পার নস্ট হয়ে যায় আর এজন্য বাইকের টায়ার ক্ষয় বেশি হয়। আমাদের সুরক্ষিত রাইডের জন্য টায়ারের ট্যম্পার শেষ হয়ে গেলেই পরিবর্তন করে নেয়া উচিৎ।

টায়ার জেল শুকিয়ে গেলেঃ

আমরা রাইডিং করার সময় টায়ারে প্যরাক, কাচ, কতো কিছুই না ডুকে আমাদের টায়ারকে লিক করে। এই সমস্যা সাময়িক সমাধানের জন্য আমরা টায়ারে জেল ব্যবহার করে থাকি। কিন্তু এই টায়ার জেল ব্যবহারের নির্দিষ্ট কিছু নিয়ম আছে। দির্ঘদিন ব্যবহারের ফলে আমাদের জেলে থাকা যে লিকুইট সেটি শুকিয়ে যায় এবং এর ভিতরে আমরা যদি কোন কারনে বাইকে কিছুদিন চালানো বন্ধ করে রাখি তাহলে টায়ারে থাকা জেল শুকিয়ে একজায়গায় জমা হয়। এতে করে আমাদের চাকা দুলতে পারে। 

এজন্য আমাদের নির্দিষ্ট সময়ে জেল পরিবর্তন করে নেয়া ভালো। 

রিম টাল হলেঃ

অতিরিক্ত লোড, অতিরিক্ত খারাপ বা ভাঙ্গা রাস্তায় বাইক চালনা, টায়ার প্রেশার কম থাকা অবস্থায় চালনা, দুর্ঘটনা বসত চাকা কোন কিছুর সাথে ধাক্কা খেলে, ইত্যাদি কারনে টায়ারের রিম টাল হতে পারে। আর রিম টালের কারনে চাকা এদিক ওদিক করতে পারে। 

হুইল এলাইনমেন্ট ঠিক না হলেঃ

আমাদের বাইকের বিভিন্ন প্রয়োজনে চাকা খুলতে হয়। টায়ার জেল দেয়া, রিম টাল বা টিউব হল লিক হলে ইত্যাদি কারনে খুলে থাকি। কিন্তু খলার পর যদি চাকার এলাইনমেন্ট ঠিক না করে চাকা ফিটিং করা হয় তাহলে চাকা এদিক ওদিক করতে পারে। এজন্য আমাদের সখের বাইকটি দক্ষ টেকনিশিয়ান দ্বারা কাজ করিয়ে নিলে ভালো।

চাকা একদিকে হেলে পরার এগুলো মূলত কারন। যদি আপনি কখনো এই সমস্যা ফেইজ করেন তাহলে আপনি এগুলোর ভিতরে সমধান পেয়ে যাবেন। 

এছাড়া যদি কোন সমস্যা আপনার যানা থাকে তাহলে কমেন্ট বক্সে রেখে যান যাতে করে আরেকজন উপকৃত হয়। 

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top